ঘরোয়া উপাদানে রূপচর্চা

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ যদি শেষ হয়ে যায় রূপচর্চার প্রসাধনী, তবে ঘরোয়া উপাদানে ভরসা রাখতে পারেন। শুধু প্রাথমিক যত্নই নয়, মাস্ক, স্ক্রাব, প্যাক ইত্যাদি সবকিছুই বাড়িতে বানিয়ে ফেলতে পারেন। সাবান কিংবা শ্যাম্পুর বিকল্প হিসেবেও এগুলো ব্যবহার করা যাবে খুব সহজে।

বেসন, দুধ আর হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে বানিয়ে নিতে পারেন ক্লিনযার। এটি তৈলাক্ত ত্বক পরিষ্কার করবে। মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে কয়েক মিনিট অপেক্ষা করে ভালোভাবে ঘষে তুলে ফেলুন। স্বাভাবিক, শুষ্ক এবং মিশ্র ত্বকের জন্য ঠাণ্ডা দুধে তুলো ডুবিয়ে পুরো মুখ মুছে নিন। মিনিট পাঁচেক অপেক্ষা করে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

Dip Add

চাল ধুয়ে সেই পানি ব্যবহার করুন টোনার হিসেবে। চাল ভিজিয়ে রেখে সেই পানিও ব্যবহার করতে পারেন। এই পানি পাতলা কাপড়ে ছেঁকে সামান্য লেবুর রস এবং গোলাপজল মিশিয়ে বোতলে ভরে ফ্রিজে রেখে দিন। সব ধরনের ত্বকের জন্যই এই মিশ্রণ টোনার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

মধু, অ্যালোভেরা জেল এবং সামান্য গ্লিসারিন মিশিয়ে রাখুন। সকালে পরিষ্কার ত্বকে এই মিশ্রণ লাগিয়ে রেখে ১০ মিনিট পর পর ধুয়ে নিন। যদি ত্বক শুষ্ক প্রকৃতির হয়, সেক্ষেত্রে মধু না মিশিয়ে বাকি দুই উপকরণের মিশ্রণ ব্যবহার করুন। গ্লিসারিনের পরিবর্তে কয়েক ফোঁটা আমন্ড অয়েল বা অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিতে পারেন।

ঘরোয়া উপকরণের সাহায্যে বানিয়ে নিতে পারেন স্ক্রাব। ওটমিল, কফি, গ্রিন টি, কমলার শুকনো খোসা, বেকিং সোডা ইত্যাদি খুব ভালো স্ক্রাবিং এজেন্ট। এর সঙ্গে মিশিয়ে নিন অল্প মধু (শুষ্ক এবং স্বাভাবিক ত্বক) কিংবা টক দই (তৈলাক্ত থেকে মিশ্র ত্বক)। দুই সপ্তাহে একবার ব্যবহার করুন স্ক্রাব।

টক দই, আলুর রস, পাকা পেঁপে বাটা একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগাতে পারেন সপ্তাহে একবার। শুকিয়ে গেলে ভেজা হাত দিয়ে ঘষে ধুয়ে নিন। পাকা পেঁপে না পেলে টমেটো বাটাও মিশিয়ে নিতে পারেন। তৈলাক্ত ত্বকের জন্য অল্প চালের গুঁড়ো, লেবুর রস এবং ডিমের সাদা অংশের সঙ্গে মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। মিশ্র ত্বকের ক্ষেত্রে চন্দনের গুঁড়ো, গোলাপজল এবং টি ট্রি অয়েলের মিশ্রণ বানিয়ে ব্যবহার করুন।

ডিমের সাদা অংশ আর পাকা কলার মিশ্রণ ব্যবহার করতে পারেন চুলের যত্নে। তবে চুল যদি রুক্ষ হয়, তাহলে এটি ব্যবহার করবেন না। রুক্ষ চুলের জন্য অ্যালোভেরা জেলের সঙ্গে সামান্য অলিভ অয়েল মিশিয়ে রাতে স্ক্যাল্প মাসাজ করুন। পরদিন সকালে শ্যাম্পু করে নিন। শ্যাম্পুর সঙ্গে কয়েক ফোঁটা আমন্ড অয়েল মিশিয়ে নিতে পারেন। শ্যাম্পু করার পর ভিনেগার বা চায়ের লিকার দিয়ে চুল ধুয়ে নিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *