ঢাবিতে সুযোগ পাচ্ছে সেই হৃদয়

মায়ের কোলে চড়ে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে আসা ‘সেরিব্রালপালসি’ রোগে আক্রান্ত অদম্য মেধামী হৃদয় সরকার অবশেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাচ্ছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে বৃহস্পতিবার দুপুরে অনুষ্ঠিত ডিনস কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

পাশাপাশি এখন থেকে সব অনুষদে শারীরিক প্রতিবন্ধীরা কোটা সুবিধা পাবেন বলেও সিদ্ধান্ত নেয় ডিনস কমিটি। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী প্রতিবন্ধী কোটায় হৃদয় ভর্তির যোগ্য নয় বলে জানিয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

Dip Add

ডিনস কমিটির একাধিক সদস্য যুগান্তরকে হৃদয়ের বিষয়ে এমন সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। এর আগে ২১ সেপ্টেম্বর কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় মায়ের কোলে চড়ে পরীক্ষা দিতে আসে হৃদয়। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচিত হয়। পরবর্তী সময়ে প্রকাশিত ফলাফলে দেখা যায়, হৃদয়ের মেধাক্রম ৩৭৪০। যার ফলে প্রতিবন্ধী কোটা ছাড়া তার ভর্তি অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। তখন সব মহল থেকে দাবি ওঠে হৃদয়কে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ দেয়ার।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী, শ্রবণ, বাক বা দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীরাই কেবল প্রতিবন্ধী কোটা পেয়ে থাকে। ফলে ভর্তিতে কোটা সুবিধা পাচ্ছিলেন না হৃদয়। বিষয়টি নিয়ে সব মহলে সমালোচনার ঝড় ওঠে। এ অবস্থায় ডিনস কমিটির বৈঠকে হৃদয়কে ভর্তির সুযোগ দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। পাশাপাশি বাক, শ্রবণ ও দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীর বাইরেও শারীরিক প্রতিবন্ধী ভর্তিচ্ছুদের কোটা প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এর আগে সোমবার দুপুর ২টায় কলা অনুষদে ‘খ’ ইউনিটে উত্তীর্ণ ওয়ার্ড, খেলোয়াড় ও প্রতিবন্ধী কোটাধারীদের মনোনয়ন সংগ্রহের জন্য ডাকা হয়। অনুষদের ওয়েবসাইটে দেখা যায়, ৯ জন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীকে ডাকা হয়েছে মনোনয়ন সংগ্রহের জন্য। এর মধ্যে ৪৫৮৪ মেধাক্রমেও রয়েছেন একজন। কিন্তু ৩৭৪০ মেধাক্রম থেকেও হৃদয় সরকার মনোনয়ন সংগ্রহের ডাক পাননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *